অনুচ্ছেদঃ বাংলাদেশের লােকশিল্প

play icon Listen to this article

অনুচ্ছেদ লিখন

বাংলাদেশের লােকশিল্প


আবহমানকাল ধরে বাংলাদেশে লােকশিল্পের চর্চা চলে আসছে। গ্রামীণ জীবনে সাধারণ মানুষ দেশীয় কাঁচামাল ব্যবহার করে সাধারণ যন্ত্রপাতি দিয়ে শিল্পসম্মতভাবে যেসব সামগ্রী তৈরি করে সেগুলােকে বলা হয় লােকশিল্প। এসব সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে কুলা, ডালা, ঝাঁকা, মােড়া, ধামা, খালুই, টোপা, তালপাখা ইত্যাদি।

বাঁশ দিয়ে তৈরি এসব জিনিস গ্রামের ঘরে ঘরে ব্যবহৃত হয়। এগুলাে নানা ডিজাইনে বিভিন্ন রং ব্যবহার করে দৃষ্টিনন্দনভাবে তৈরি হলেই লােকশিল্প হয়ে যায়। বেত দিয়ে তৈরি শীতলপাটি, মােড়া, চেয়ার, টেবিল, খাট ইত্যাদি শহুরে মানুষের দৃষ্টি কাড়ে। এছাড়া নকশিকাঁথা, মাটি দিয়ে তৈরি নানা তৈজসপত্র, পুতুল, ঘােড়া, হাতি, চুড়ি, দুল, ফুলদানি ইত্যাদি খুবই আকর্ষণীয়ভাবে তৈরি হয়। এছাড়া শামুক ও ঝিনুকের তৈরি মালা, কানের দুল, বালা, চাবির রিং ইত্যাদি খুবই আকর্ষণীয়।

এসব সামগ্রী বিদেশিদেরও মন কেড়েছে। এসব রপ্তানি করে আসছে। প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা। এর বাইরে বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় তাতে তৈরি শাড়ি, চাদর, জামা বা প্যান্টের কাপড়, লুঙ্গি, গেঞ্জি ইত্যাদির কদর রয়েছে। টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ি, কুমিল্লার খাদি বা খদ্দর, নারায়ণগঞ্জের জামদানি ও গেঞ্জি, পার্বত্য চট্টগ্রামের উপজাতিদের তৈরি চাদর, ওড়না, থামি ইত্যাদির খ্যাতি বাংলাদেশের বাইরেও ব্যাপকভাবে রয়েছে। এগুলাের ডিজাইন ও রং শুধু দৃষ্টিনন্দন নয়, ব্যবহারেও আরামদায়ক। এসব লােকশিল্প সামগ্রীর খ্যাতি বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে মহীয়ান করে তুলছে।

What’s your Reaction?
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মতামত জানানঃ