ভাবসম্প্রসারনঃ আমার একার সুখ, সুখ নহে ভাই

play icon Listen to this article

বাংলা দ্বিতীয় পত্র

আমার একার সুখ, সুখ নহে ভাই


সমাজের বৃহত্তর কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করার মাঝেই মানবজীবনের সার্থকতা নিহিত। নিজের সুখ-দুঃখকে বড় মনে না করে অপরের সুখ-দুঃখকে নিজের করে নেওয়ার মাঝেই সুখ। মানুষ জ্ঞান, বুদ্ধি, বিবেক, সুকোমল হৃদয়ের কারণে অন্য প্রাণীর চেয়ে আলাদা। মানুষ পরের উপকারে নিজেকে নিয়োজিত করতে পারে, যা অন্য কোনো প্রাণী পারে না। তাই নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত থাকার জন্য পৃথিবীতে মানুষের জন্ম হয়নি।

কিন্তু তা না করে অধিকাংশ মানুষ শুধু স্বীয় স্বার্থ হাসিলের মানসিকতায় ডুবে থাকে। অন্যের সুখ-দুঃখ, হাসি-কান্না, আপদ-বিপদ প্রভৃতির প্রতি নিয়োজিত থাকা উচিত। অপরের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত না রাখলে আত্মার বিনাশ ঘটে। মানুষের প্রকৃতি থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত। প্রকৃতি তার সামগ্রিক রূপ, রস, গন্ধ মানুষের মঙ্গলের জন্য বিলিয়ে দেয়। যেমন-ফুলের সৌরভ, সৌন্দর্য তার নিজের হলেও সকলের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করে দিয়ে তার জীবনের সার্থকতা খুঁজে পায়।

তেমনিভাবে নদী, তরু, চন্দ্র, সূর্য, সাগর প্রভৃতি নিজেদের বিলিয়ে দেয় অকাতরে। যারা মহৎ লোক তারা অপরের সুখ শান্তির জন্য নিজের সুখ-দুঃখ, আনন্দ- বেদনা ভুলে গিয়ে অপরের সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনাকে নিজের মনে করে গ্রহণ করে। সকলের সাথে বন্ধুত্বের বন্ধন সৃষ্টি করে, সবাইকে নিয়ে সমাজের উন্নতির কথা চিন্তা করে। তারা সবার সুখে সুখী এবং সবার দুঃখে দুঃখী। গরীব, অসহায়, দুঃখ দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের মুখে হাসি ফুটিয়ে তারা সুখী হয়।

শিক্ষা: নিজের সুখ খোঁজার মাঝে প্রকৃত সুখ পাওয়া যায় না। সবার সুখে সুখী এবং সবার দুঃখে দুঃখী হয়ে মানবকল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দেওয়ার মাঝেই প্রকৃত সুখ নিহিত।

What’s your Reaction?
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মতামত জানানঃ

সাবস্ক্রাইব করুন...    OK No thanks