কোনাে একটি বিজ্ঞান মেলার বর্ণনা দিয়ে বন্ধুকে একখানা পত্র লেখ।

play icon Listen to this article

কোনাে একটি বিজ্ঞান মেলার বর্ণনা দিয়ে বন্ধুকে একখানা পত্র লেখ।

অথবা, তােমার দেখা একটি বিজ্ঞান মেলার বর্ণনা দিয়ে তােমার প্রবাসী বন্ধুর কাছে একখানা পত্র লেখ।

১১.০৬.২০২২ ইং
১৯, ডিপ্টিলারী রােড।

গেন্ডারিয়া, ঢাকা-১২০৪।

প্রিয় জুয়েল,
আমার ভালােবাসা নিও। তােমার কাছে অনেকদিন লিখব লিখব করেও লেখা হয়ে ওঠে না। তাই, আজ দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে শুরু করছি যেভাবেই হােক লিখবই। অবশ্য তােমাকে একটা আনন্দপূর্ণ খবর দেওয়ার জন্য মনটা উৎসুক ছিল। সব মিলিয়ে শেষ পর্যন্ত তােমার কাছে লেখা হচ্ছে এটাই বড় কথা। গত ২৯.০৫.২০২২ তারিখে ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল মাঠে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এ দিনটি আমার কাছে একটি আনন্দ ও গৌরবের দিন। দিনটি আমার জীবনে স্মৃতি হয়ে থাকবে। আমার এ আনন্দঘন দিনটির একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ তােমার কাছে উপস্থাপন করছি। বিজ্ঞান মেলার শােভাবর্ধনের জন্য স্কুল মাঠটি নানা রকম সাজে সজ্জিত করা হয়েছিল। স্কুলের প্রবেশ দ্বারটি নানা রকম ফুল দিয়ে খুবই সুন্দরভাবে সাজানাে হয়। সকাল দশটা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত ঐ অনুষ্ঠান চলেছিল।

নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী বিভিন্ন স্কুলের প্রতিযােগীরা তাদের তৈরি প্রদর্শনী বস্তু নিয়ে নিজ নিজ স্টলে বসে পড়ে। আমাদের স্কুলও উক্ত মেলায় অংশগ্রহণ করেছিল। আমরা সরু তার দিয়ে টেলিফোন বানিয়েছিলাম এবং ইদুর মারার কল বানিয়েছিলাম। দুটো প্রদর্শনীই সবার কাছে সমাদৃত হয়েছিল। এছাড়া দর্শকবৃন্দ অত্যন্ত আগ্রহের সাথে প্রত্যেকটি স্টল ঘুরে দেখেন। বিজ্ঞানের কৃতিত্ব দেখে আনন্দ লাভ করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মহাকাশ বিজ্ঞান বিভাগের মহাপরিচালক ড. শাহাদাত হােসেন। তিনি সবগুলাে স্টল ঘুরে দেখেন এবং আমাদেরকে উৎসাহিত করেন। মেলা শেষে ফলাফল ঘােষণা করেন ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার সাহেব। আমাদের টেলিফোন যন্ত্রটি বিচারকদের বিচারে ২য় পুরস্কার হিসেবে ৫০০০ টাকার সম্মান বয়ে আনে। যাক, আজ আর নয়। সাক্ষাতে অনেক কথা হবে। তােমার আব্বা আম্মাকে আমার শ্রদ্ধা জানিও।

ইতি –
তােমারই
আরিফ

বিশেষ দ্রষ্টব্য : পত্রের শেষে ডাকটিকেট সংবলিত খাম ও ঠিকানা ব্যবহার অপরিহার্য।

আরও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিগত চিঠিঃ

What’s your Reaction?
+1
33
+1
19
+1
6
+1
6
+1
4
+1
4

আপনার মতামত জানানঃ