প্রাণ থাকলেই প্রাণী হয়, কিন্তু মন না থাকলে মানুষ হয় না – ভাবসম্প্রসারন

play icon Listen to this article

প্রাণ থাকলেই প্রাণী হয়, কিন্তু মন না থাকলে মানুষ হয় না


ভাব-সম্প্রসারণ: প্রাণী মাত্রই স্বাভাবিক প্রাকৃতিক নিয়মে জীবন অতিবাহিত করে। কিন্তু মানুষকে সভ্যতার সাথে সংগ্রাম করে মানবিকতার স্ফুরণ ঘটিয়ে সত্যিকার মানুষ হতে হয়। স্রষ্টার সকল সৃষ্টির মধ্যে মানুষের পার্থক্য এখানেই যে, মানুষের মন বলে একটি আলাদা অস্তিত্ব আছে। মন আছে বলেই বিশেষ বিশেষ অনুভূতির বিকাশ ঘটে এবং মানুষের সঙ্গে অন্য প্রাণীর পার্থক্য সহজেই খুঁজে পাওয়া যায়। প্রাণ আর মন এক নয়। মানুষ ছাড়া অন্য কোনাে সৃষ্টির মধ্যে তা একত্রে থাকে না। সেজন্য মানুষ বিশেষ গুণ নিয়ে সৃষ্টির সেরা জীব বলে বিবেচিত।

প্রাণের দিক দিয়ে মানুষ ও অন্যান্য প্রাণীর মধ্যে পার্থক্য না থাকলেও মনের দিক দিয়ে এ দুয়ের মধ্যে পার্থক্য বিস্তর। মন আছে বলেই মানুষ মঙ্গলের পথে, কল্যাণের পথে, সত্য ও সুন্দরের পথে, ন্যায়ের পথে চলতে অভ্যস্ত। মানবিক মূল্যবােধের কারণে মানুষ আর্তপীড়িত, ব্যথিতের পাশে গিয়ে দাঁড়ায়। নিরন্নকে অন্নদান করে, মন আছে বলেই মানুষ অন্যকে ভালােবাসে। মনই মানুষকে জ্ঞানী ও সংবেদনশীল করে গড়ে তুলতে পারে। সুখ দুঃখ, আনন্দ-বেদনা, প্রেম-ভালােবাসা ইত্যাদি অনুভূতি মানুষের মনের মাধ্যমে প্রকাশ পায়। যার মধ্যে এ ধরনের কোনাে অনুভূতি থাকে না তাকে স্বাভাবিক মানুষ বলে বিবেচনা করা হয় না; সে তখন অন্য প্রাণীর মতােই হয়ে পড়ে।

প্রখ্যাত মনীষী দানিয়েলের ভাষায়—“ একটি সুন্দর মন অন্ধকারে আলাের মতাে, যার মাধ্যমে কলুষতার মাঝেও নিজের অস্তিত্বকে মর্যাদাসম্পন্ন রাখা যায়। মানুষের এই সৃজনশীল ক্ষমতা ও মননশীলতা অন্যান্য প্রাণীর ওপর তাকে শ্রেষ্ঠত্ব দান করেছে। তাই বলা যায় — মন থাকলে মানুষ হয়, প্রাণ থাকলে প্রাণী। মনুষ্যত্বের বিকাশ সাধনই মানবজীবনের চরম লক্ষ্য। মনুষ্যত্ব বিকাশের মাধ্যমে সত্যিকারের মানবিক মূল্যবােধ জাগিয়ে তােলার মাধ্যমে মানুষ হয় পূর্ণ মানুষ।

What’s your Reaction?
+1
3
+1
4
+1
2
+1
1
+1
2
+1
1

আপনার মতামত জানানঃ

সাবস্ক্রাইব করুন...    OK No thanks