সারাংশ: যে-সকল জিনিস অন্যের হৃদয়ে সঞ্ছারিত হইবার

যে-সকল জিনিস অন্যের হৃদয়ে সঞ্ছারিত হইবার

যে-সকল জিনিস অন্যের হৃদয়ে সঞ্ছারিত হইবার জন্য প্রতিভাশালী হৃদয়ের কাছে সুর, রং, ইঙ্গিত প্রার্থনা করে, যাহা আমাদের হৃদয়ের দ্বারা সৃষ্ট না হইয়া উঠিলে অন্য হৃদযের মধ্যে প্রতিষ্ঠা লাভ করিতে পারে না; তাহাই সাহিত্যের সামগ্রী। তাহা আকারে প্রকারে, ভাবে-ভাষায়, সুরে-ছন্দে মিলিয়া তবেই বাঁচিতে পারে। তাহা মানুষের একান্ত আপনার; তাহা আবিষ্কার নহে, অনুকরণ নহে, তাহা সৃষ্টি। সুতরাং তাহা একবার প্রকাশিত হইয়া উঠিলে তাহা রূপান্তর, অবস্থান্তর করা চলে না। তাহার প্রত্যেক অংশের ওপর তাহার সমগ্রতা একান্তভাবে নির্ভর করে। যেখানে তাহার ব্যত্যয় দেখা যায়, সেখানে সাহিত্য – অংশে তাহা হেয়।

সারাংশ:

সাহিত্যের সাথে মানবহৃদয়ের সম্পর্ক অত্যন্ত ঘনিষ্ট। যে সাহিত্য হৃদয় দ্বারা সৃষ্ট সে সাহিত্যই হৃদয়ে স্থান লাভ করে। অপরের অনুকরণে নয়, আপন হৃদয়ের ভাব, ভাষা, সুর ও ছন্দের সাথে মিশে সাহিত্য জন্ম লাভ করে। আর এ সাহিত্যই হয় অমর, অক্ষয়।

আপনার মতামত জানানঃ