সরকারি পৃষ্ঠপােষকতায় বই বিতরণের একটি সংবাদ প্রতিবেদন রচনা কর

play icon Listen to this article

মনে কর, তুমি হােমনা অঞ্চলের ‘দৈনিক প্রথম আলাে’ পত্রিকার প্রতিনিধি। বছরের প্রথম দিনে সরকারি পৃষ্ঠপােষকতায় বই বিতরণের ওপর একটি সংবাদ প্রতিবেদন রচনা কর।


নতুন বইয়ের উচ্ছ্বাস


নিজস্ব প্রতিনিধি, দৈনিক প্রথম আলাে, হােমনাঃ ০১ জানুয়ারি, ২০১৯৷ সকাল ৯টা নানা রঙের ঝকঝকে নতুন বই। তীব্র আকর্ষণ খুদে শিক্ষার্থীদের। নতুন গন্ধ, নতুন রং, নতুন নতুন বিষয়, নতুন নতুন বাহারি ছবি- এ অনুভূতি বিচিত্র, বৈচিত্র্যময়। এ আনন্দ হৃদয় নিংড়ানাে, স্বতঃস্কূর্ত। দুদিন আগেই নতুন বই এসে গেছে স্কুলে। শ্রেণি ও সিলেবাস অনুযায়ী সেগুলাে বিন্যন্ত করা হয়েছে। হােমনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেল খুদে শিক্ষার্থীরা নতুন ক্লাসে বসে আছে। সবার চোখে-মুখে আনন্দের ঝিলিক। কখন নতুন বই হাতে আসবে সেই উন্মাদনার প্রহর গুনছে।

সেই চরম এবং পরম মুহূর্তটির জন্য অপেক্ষা করল শিক্ষার্থীরা। বই হাতে পেয়ে সে কী আনন্দ। প্রকাশ করার ভাষা নেই আমার। কাছেই উচ্চ বিদ্যালয়। নবম শ্রেণি পর্যন্ত বই দেওয়া হবে। এসে দেখলাম বই হাতে নিয়ে বেরুচ্ছে ছাত্ররা। উচু করে দেখাল আমাদের। বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এসে দেখা গেল, বইয়ের অপেক্ষায় বসে আছে ছাত্রীরা। দেরি হচ্ছে কেন? খবর নিয়ে জানা গেল প্রত্যেক ক্লাসেরই একটা বিষয়ের বই আসেনি। সিদ্ধান্ত হয়েছে, যা এসেছে তা এখনই বিতরণ শুরু হবে।

ক্লাসে ক্লাসে পৌছে গেল বই। নতুন বই পেয়ে সবাই উল্টে পাল্টে দেখছে, গন্ধ নিচ্ছে কেউ কেউ। সবার চোখে-মুখে আনন্দ ছড়িয়ে আছে। উপজেলার প্রত্যন্ত একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে রওনা হলাম। মােটর সাইকেলে কাছাকাছি পৌছে দেখলাম খুদে শিক্ষার্থীরা কেউ বই উঁচু করে, কেউ বুকের কাছে রেখে আলপথে দৌড়াচ্ছে আর উল্লাস করছে। ভালাে লাগল খুব। সরকারের চ্যালেঞ্জিং এ সিদ্ধান্ত সর্বমহলে প্রশংসিত হচ্ছে কয়েক বছর ধরে। আর শিক্ষার্থীরা বছরের প্রথম দিনে হাতে নতুন বই পেয়ে পড়াশুনার প্রতি নিবিষ্ট হচ্ছে, অনুপ্রাণিত হচ্ছে। অভিভাবকরাও দারণ খুশি। সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন কিছু অভিভাবক, ধন্যবাদ জানালেন অনেকেই।


অরিজিৎ দাশ শােভন
প্রতিবেদক।


আরও কয়েকটি প্রতিবেদনঃ

What’s your Reaction?
+1
5
+1
2
+1
4
+1
2
+1
2
+1
0

আপনার মতামত জানানঃ