বৃক্ষরােপণ সপ্তাহ পালনের প্রয়ােজনীয়তা উল্লেখ করে তােমার বন্ধু বেলালকে একখানা পত্র লিখ

play icon Listen to this article

বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ পালনের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে তোমার বন্ধু বেলালকে একখানা পত্র লেখ।

মনে কর, তােমার নাম সাজিদ। তুমি গাইবান্ধার দড়িয়াপুর বসবাস কর। বৃক্ষরােপণ সপ্তাহ পালনের প্রয়ােজনীয়তা উল্লেখ করে তােমার বন্ধু বেলালকে একখানা পত্র লেখ।


২৫, ০৪, ২০২১
ধানমণ্ডি, ঢাকা।

প্রিয় আদনান,
শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা নিও। আশা করি ভালো আছ। আমিও আল্লাহর রহমতে ভালো আছি। গতকাল তোমার একটি চিঠি পেয়েছি। এতে বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ পালনের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে তুমি জানতে চেয়েছ। সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজন মুক্ত ও বিশুদ্ধ বাতাস। বিশুদ্ধ বাতাসের জন্য প্রয়োজন দূষণমুক্ত পরিবেশ। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য প্রয়োজন সবুজ বৃক্ষের। মানুষের প্রয়োজন ও সভ্যতার উন্নয়নের স্বার্থে প্রতিনিয়তই মানুষ নিধন করছে বৃক্ষ, উজাড় হচ্ছে বন। ফলে পরিবেশ তার ভারসাম্য হারাচ্ছে। মানুষ ও জীবজন্তু শ্বাস-প্রশ্বাস গ্রহণ করে অক্সিজেন, আর ত্যাগ করে কার্বন ডাই-অক্সাইড। কিন্তু সবুজ বৃক্ষ তার সম্পূর্ণ বিপরীত। এ প্রাকৃতিক নিয়মের কারণে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করার জন্য প্রয়োজন বৃক্ষরোপণের। সভ্যতা ও উন্নয়নের ফলে সৃষ্টি হচ্ছে কলকারখানা ও রাস্তায় চলাচল করছে অধিক হারে যানবাহন। কলকারখানা ও যানবাহনের ধোঁয়ায় বাতাসে কার্বন ডাই-অক্সাইডের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। হ্রাস পাচ্ছে বাতাসের ওজোন স্তর। সৃষ্টি হচ্ছে গ্রিনহাউস এ্যাফেক্ট। মানবসমাজে ঘটছে স্বাস্থ্যহানি ও নানা রোগব্যাধি। অন্যদিকে বায়ুন্তরে গ্যাসীয় পদার্থের পরিমাণ হ্রাস-বৃদ্ধির ফলে নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও ঘূর্ণিঝড় বৃদ্ধি পাচ্ছে। অধিক পরিমাণ বৃক্ষরোপণ করলে বাতাসে অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণ হবে। প্রকৃতির ভারসাম্য ফিরে আসবে। পরিবেশ দূষণমুক্ত থাকবে। এছাড়া মানব সমাজের নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর মধ্যে জ্বালানি উল্লেখযোগ্য। বাংলাদেশের জ্বালানির চাহিদা সিংহভাগ পূরণ করা হয় বৃক্ষের মাধ্যমে। বর্তমানে যে হারে বৃক্ষ কাটা হচ্ছে, ভবিষ্যতে অধিক চাহিদা মেটানোর জন্য প্রয়োজন আরও অধিক বৃক্ষরোপণ। অন্যদিকে আমাদের প্রাকৃতিক সম্পদের মধ্যে কাঠ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। কাঠের মাধ্যমে আমরা বাড়িঘর, আসবাবপত্রসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রস্তুত করে থাকি। কাঠের চাহিদার জন্য আমরা বৃক্ষ কাটছি। ভবিষ্যৎ চাহিদা আরও বেশি। সুতরাং প্রয়োজন অধিক হারে বৃক্ষরোপণ, মুক্ত পরিবেশ সংরক্ষণ ও ভবিষ্যৎ চাহিদা পূরণের কথা চিন্তা করে পালন করা হয় বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ। আমাদের সকল নাগরিকের উচিত ভবিষ্যৎ বংশধরদের জন্য দৃষণমূক্ত পরিবেশ ও সম্পদ সৃষ্টির লক্ষ্যে বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ সফল করা।

আজ আর নয়। তোমার চিঠির অপেক্ষায় রইলাম।

ইতি-
তোমারই বন্ধু সাদমান

বিশেষ দ্রষ্টব্য : পত্রের শেষে ডাকটিকেট সম্বলিত খাম ও ঠিকানা ব্যবহার অপরিহার্য ।


আরও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পত্রঃ

What’s your Reaction?
+1
1
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মতামত জানানঃ

সাবস্ক্রাইব করুন...    OK No thanks